1. mail.bholaprotidin@gmail.com : admin :
  2. sh.sakil@gmail.com : News Desk : Desk News
  3. admin@bholaprotidin.com.bd : admin :
  4. zakirjournalist@yahoo.com : zakir :
লালমোহনে ৮ বছরের শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ। - ভোলা প্রতিদিন
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর হানিফ ফ্লাইওভারে সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিতে ভোলার এক তরুণ নিহত। কোটা আন্দোলনের নামে মুক্তিযোদ্ধাদের অবমাননার প্রতিবাদে ভোলায় মনববন্ধন ও শান্তি সমাবেশ আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে ভোলায় ছাত্রদলের বিক্ষোভ ভোলায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক ভোলার পুলিশ প্রশাসনে রদবদল ভোলায় নির্মানাধীন সুইমিংপুলে বিশাল ধস, বড় ধরনের অভিযোগ স্থানীয়দের ভোলায় শিক্ষার্থীর উপর হামলার সংবাদ প্রকাশ করতেই সাংবাদিককে মেরে ফেলার হুমকি ভারতের সাথে দেশবিরোধী চুক্তি জনগণ মানে না: ভোলায় মুফতি ফয়জুল করিম ‘রাফসান দ্য ছোট ভাই’-এর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি ভোলায় বরফ কলের গ্যাসের রিসিভার বিস্ফোরণে নিহত ১

লালমোহনে ৮ বছরের শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ।

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৪ জুন, ২০২৩
  • ৪১৪ বার পঠিত

লালমোহন প্রতিনিধি ||

লালমোহন উপজেলায় নূরানী মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির এক শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করেছে এক শিক্ষক। মেডিকেল রিপোর্টে ওই শিশুকে ধর্ষণের আলামত পাওয়ায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে শুক্রবার রাতে লালমোহন থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। যার মামলা নং- ২২।

গত বুধবার (২১ জুন) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে জহির নামের ওই শিক্ষক শিশুটিকে বাড়িতে পৌছে দেওয়ার কথা বলে মাদরাসা থেকে তাকে সঙ্গে নিয়ে বের হন। এরপর লালমোহন করিমুন্নেসা-হাফিজ মহিলা ডিগ্রী কলেজের কাছাকাছি এসে শিশুটিকে জোরপূর্বক নির্জন সুপারি বাগানের মধ্যে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে শিশু বাসায় গিয়ে কান্না করতে করতে বিষয়টি তার পরিবারকে জানায়।

অভিযুক্ত ৫০ বছর বয়সী মোঃজহির ওরফে হক সাহেব লালমোহন উপজেলার চরভূতা ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ তারাগঞ্জ এলাকার মোঃ শফিউল্লাহর ছেলে। এছাড়াও তিনি লালমোহন পৌরশহরের পাকার মাথা নামক এলাকায় দক্ষিণ পাশে খাদিমুল ইনসান নূরানী মাদরাসার শিক্ষক। ভুক্তভোগী ওই শিশুর পরিবার লালমোহন পৌরশহরের বাসিন্দা। ঘটনার পর মাদরাসাটি বন্ধ করে পালিয়ে যায় শিক্ষকসহ সকল সংশ্লিষ্টরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, ভুক্তভোগী ওই শিশুর পরিবারের লোকজন শুক্রবার থানায় আসলে শিশুর মেডিকেল টেস্টের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। মেডিকেল টেস্টে শিশুকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায়। এরপর তারা ভোলা থেকে এসে শুক্রবার রাতে থানায় একটি মামলা করে। তবে এরই মধ্যে আত্মগোপনে চলে গেছে অভিযুক্ত ওই শিক্ষক। তিনি আরো বলেন, আমরা অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতারে সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
© স্বত্ব সংরক্ষিত ©২০২৩ ভোলা প্রতিদিন.কম
Theme Customized By Shakil IT Park

You cannot copy content of this page