1. mail.bholaprotidin@gmail.com : admin :
  2. sh.sakil@gmail.com : News Desk : Desk News
  3. admin@bholaprotidin.com.bd : admin :
  4. zakirjournalist@yahoo.com : zakir :
লালমোহনে গৃহবধূ সাহিদার মর*দেহ বাড়িতে ফেলে পালিয়েছেন স্বামী-শ্বশুর - ভোলা প্রতিদিন
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৮:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
‘রাফসান দ্য ছোট ভাই’-এর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি ভোলায় বরফ কলের গ্যাসের রিসিভার বিস্ফোরণে নিহত ১ লালমোহনে গৃহবধূ সাহিদার মর*দেহ বাড়িতে ফেলে পালিয়েছেন স্বামী-শ্বশুর ভোলায় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় স্কুলছাত্রীকে মারধর। রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যুৎ লাইন সচল করতে গিয়ে লাইনম্যানের মৃত্যু ভোলার চরফ্যাশনগামী লঞ্চ থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নারী নিখোঁজ  ভোলায় ঘূর্ণিঝড় রিমালে উপড়ে পড়া গাছ কাটতে গিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু র‍্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন- হারুন অর রশিদ। চরফ্যাশনে সড়কে ঝরল ২ প্রাণ ভোলায় ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ সতর্কতায় কোস্টগার্ডের মাইকিং

লালমোহনে গৃহবধূ সাহিদার মর*দেহ বাড়িতে ফেলে পালিয়েছেন স্বামী-শ্বশুর

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৮ জুন, ২০২৪
  • ৬০ বার পঠিত

ভোলা প্রতিনিধি॥

ভোলার লালমোহন উপজেলায় সাহিদা বেগম নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার রমাগঞ্জ ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের নুন বেপারী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

ঐ গৃহবধূর বাবা মোস্তফা মিয়া বলেন, ‘প্রায় সাত বছর আগে ঐ বাড়ির আলী আহমদের ছেলে ইউসুফের সঙ্গে আমার মেয়ে সাহিদার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। তাদের ঘরে ৩ বছর ও এক বছর বয়সী দুই ছেলে সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই জামাতা ইউসুফ টাকা-পয়সার দাবিতে প্রায় আমার মেয়েকে মারধর করতো। এ নিয়ে একাধিকবার সালিশ বৈঠকও হয়েছে। দুপুরে আমার জামাতা ইউসুফ কল দিয়ে বলেন আমার মেয়ে নাকি কথা বলছে না। পরে আমরা মেয়ের স্বামীর বাড়িতে গিয়ে দেখি সে মৃত অবস্থায় পড়ে আছে। আমাদের ধারণা- জামাতা ইউসুফ ও তার পরিবারের লোকজন আমার মেয়েকে নির্যাতন করে মেরে ফেলেছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

এদিকে, এ ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন গৃহবধূ সাহিদা বেগমের স্বামী ইউসুফ ও শ্বশুর আলী আহম্মদ।

তবে সাহিদার শাশুড়ি জুলেখা বেগম জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত থেকে পেটের ব্যথায় কাতরাচ্ছিল সাহিদা। কয়েকবার বমিও করেছিলো। শুক্রবার হওয়ায় সময় মতো স্থানীয় চিকিৎসক আসেনি। ঐ পেট ব্যথার কারণেই সাহিদার মৃত্যু হতে পারে।

এ বিষয়ে লালমোহন থানার ওসি এসএম মাহবুব উল আলম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঐ গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
© স্বত্ব সংরক্ষিত ©২০২৩ ভোলা প্রতিদিন.কম
Theme Customized By Shakil IT Park

You cannot copy content of this page